শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরানোর আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘে প্রস্তাব গ্রহণ

প্রকাশিত: ০৮:৪৫ এএম, জুন ২৩, ২০২০

রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরানোর আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘে প্রস্তাব গ্রহণ

বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি অনুযায়ী উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করে রোহিঙ্গাদের পূর্ণ নিরাপত্তা ও সম্মানের সঙ্গে নিজ ভূমিতে ফিরে যেতে উৎসাহিত করার জন্য মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে। জেনেভায় পরিষদের চলতি অধিবেশনে ‘মিয়ানমারের মানবাধিকার পরিস্থিতি’ শীর্ষক এই প্রস্তাব গৃহীত হয়। মানবাধিকার পরিষদের ৪৭ সদস্য দেশের ৩৭টির ভোটে প্রস্তাবটি গৃহীত। উন্মুক্ত ভোটে দুটি দেশ বিপক্ষে মত দেয় এবং ভোটদানে বিরত থাকে আট দেশ। সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জেনেভায় বাংলাদেশের স্থায়ী মিশন জানায়, প্রস্তাবে জাতীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ফৌজদারি বিচার ব্যবস্থার আওতায় তদন্ত অব্যাহত ও জোরদার করার প্রতি গুরুত্বারোপ করার কথা তুলে ধরা হয়। এতে বলা হয়, ‘আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে চলমান প্রক্রিয়া ও গাম্বিয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক বিচারালয়ে চলমান কার্যক্রমকে স্বাগত জানানো হয়।’ এবারের প্রস্তাবে জাতিসংঘের ‘স্বাধীন তদন্ত প্রক্রিয়া’, মহাসচিবের বিশেষ দূত এবং মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থার স্পেশাল র‍্যাপর্টোরসহ সংশ্লিষ্টদের রাখাইন ও মিয়ানমারের অন্যান্য অঞ্চলে নির্বিঘ্নে প্রবেশের অনুমতিসহ সার্বিক সহযোগিতা দেওয়ার জন্য মিয়ানমারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। স্পেশাল র‍্যাপর্টোরের কার্যকাল এক বছর বাড়ানোর সিদ্ধান্তও এ প্রস্তাব গ্রহণের মাধ্যমে অনুমোদিত হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ মিশন। অধিবেশনে দেশটির মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে একটি প্রতিবেদন দাখিলের জন্য স্পেশাল র‍্যাপর্টোরকে অনুরোধ করা হয়। গত ২০১৭ সালের ২৫ অগাস্ট থেকে রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দমন অভিযানের মুখে সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। আগে থেকে বাংলাদেশে অবস্থান করছিল আরও চার লাখ রোহিঙ্গা। আন্তর্জাতিক চাপের মধ্যে মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে ২০১৭ সালের শেষ দিকে বাংলাদেশের সঙ্গে একটি চুক্তি করলেও প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া এখন পর্যন্ত শুরু হয়নি। সূত্র : দেশ রূপান্তর
Link copied!