বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১

পেছনে তাকাতে বারণ করলেন দুই নির্বাচক

প্রকাশিত: ০৩:৫৬ এএম, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২১

পেছনে তাকাতে বারণ করলেন দুই নির্বাচক

প্রথম চারদিন চট্টগ্রাম টেস্ট ছিল বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণে। ৩৯৫ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েছিল প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। পঞ্চম দিনে জয়ের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রয়োজন ছিল ২৮৫ রানের। আগের দিন তারা ১১০ রান তুলতেই হারায় ৩ উইকেট। তবে শেষ পর্যন্ত রেকর্ড গড়েই জয় তুলে নেয় ক্যারিবীয়রা। ১৪৪ বছরের টেস্ট ইতিহাসে এশিয়ার মাটিতে এত বড় লক্ষ্য তাড়া করে জয়ের নজির ছিল না কোনো দলের। ১-০ তে এগিয়ে থেকে ঢাকায় সিরিজের শেষ টেস্ট খেলতে নামবে সফরকারীরা। তবে নিশ্চয়ই আগের চেয়ে তারা এবার হবে আরো আত্মবিশ্বাসে টগবগে। তারা এগিয়ে থাকবে মানসিক শক্তিতেও। অন্যদিকে এমন লজ্জার হারের ক্ষত নিয়ে মাঠে নামবে মুমিনুল হক সৌরভের দল। তাদের সামনে এখন দেশের মাটিতে সিরিজ বাঁচানোই যে বড় চ্যালেঞ্জ! আর এই কারণেই জাতীয় দলের দু্‌ই নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন ও আবদুর রাজ্জাক টাইগারদের পেছনে তাকাতে বারণ করছেন। ভাবতে বলেছেন শুধু ঢাকা টেস্ট নিয়ে। আগামী ১১ই ফ্রেব্রুয়ারি মিরপুর শেরেবাংলা মাঠে শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট। আর দলকে ভুল কমানোর পরামর্শ দিয়ে বাশার বলেন, ‘এই কথা বলতে বাধা নেই যে চার দিন নিজের হাতে ম্যাচ থাকার পর তা হেরে যাওয়া ভীষণ হতাশার। বিশেষ করে যেখানে ৩৯৫ রানের মতো বিশাল লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েছিল মুমিনুলরা। এমন ম্যাচ জয়ে প্রতিপক্ষকেই সাধুবাদ দিতে হয়। এখন যা হয়েছে তা নিয়ে ভেবে লাভ নেই। দ্বিতীয় টেস্টের বেশি সময় নেই। এখন পেছনে তাকানোর সময় নেই।’ ঢাকা টেস্টে বাংলাদেশ দল পাচ্ছে না সাকিব আল হাসানকে। গতকাল তা নিশ্চিত করেছেন বিসিবি’র প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদন নান্নু। তাই সিরিজ বাঁচানোর ম্যাচে সাকিবহীন বাংলাদেশের বড় চ্যালেঞ্জ। এমন অবস্থায় করণীয় নিয়ে বাশার বলেন, ‘আমি মনে করি না এখন আর চট্টগ্রাম টেস্ট নিয়ে ভাবার কিছু আছে। এ নিয়ে দ্বিতীয় টেস্টের পর আলোচনা করা যাবে। কেন হলো, কী হলে ভালো হতো- এসব আলোচনার সময় আছে। আমি মনে করি ঢাকা টেস্টে দলের প্রত্যেকটা ক্রিকেটারকে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে। একটা কথা তো সত্য, যে ভুল হয়েছে তা রাতারাতি শুধরে নেয়া সম্ভব নয়। কিন্তু ভুলগুলো যেন কম হয় সে চেষ্টাই করতে হবে দলের সবাইকে। দলে কে আছে কে নেই তা ভাবলে হবে না। যারা সুযোগ পাবে তাদের দায়িত্ব পালন করতে হবে এটাই কথা।’ এখনো নির্বাচক হিসেবে কাজ শুরু করেননি আবদুর রাজ্জাক। জাতীয় দলের সাবেক এই স্পিনারকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) নান্নু-বাশারের সঙ্গে তৃতীয় নির্বাচক হিসেবে যুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে। তবে টাইগারদের দীর্ঘ দিনের সঙ্গী দাঁড়িয়েছেন সতীর্থদের পাশেই । তিন স্পিনার তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ ও নাঈম হাসানের ব্যর্থতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। তবে রাজ্জাক কাউকেই দোষ দিতে রাজি নন। এমন হারের পর দলকে সব ভুলে নতুনভাবে শুরু করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশের সফল স্পিনার আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘আসলে ওরা (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) যেভাবে জিতেছে তাতে কৃতিত্বই আগে দিতে হবে। ইতিহাস গড়ে জয় তখনই আসে যখন দলের কেউ সেই মানের খেলাটা খেলে। এখানে কাইল মেয়ার্সের যে পাফরম্যান্স তার সামনে সব কিছুই এলোমেলো ছিল। দেখেন আমাদের পুরো স্পিন আক্রমণটাই ছিল সাকিবকে ঘিরে। সেখানে সে দ্বিতীয় দিন থেকে মাঠে নেই। বিশেষ করে শেষ দিন অধিনায়ক থেকে শুরু করে দলের প্রতিটি স্পিনারই তাকে মিস করেছে। ও (সাকিব) যখন বল করে তখন সে-ই দলের মেইন বোলার। আর উইকেটটা কিন্তু স্পিনারদের কোনো রকম সাহায্য করেনি। শেষ দিন পর্যন্ত স্বচ্ছন্দেই ব্যাট করা গেছে। এখন আমাদের ঢাকা টেস্ট নিয়ে ভাবতে হবে। যেহেতু সাকিব খেলতে পারবে না। তার অভাব পূরণ করাটাই হবে বড় কাজ। আর আমি মনে করি না এখন দোষ দিয়ে এগিয়ে যাওয়া যাবে। আমি মনে করি সামনে যে যার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করলেই দল ঘুরে দাঁড়াবে।’
Link copied!