বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১

চীনের উহান ল্যাব থেকেই করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে: ট্রাম্প

প্রকাশিত: ০৮:২৭ এএম, মে ১, ২০২০

চীনের উহান ল্যাব থেকেই করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে: ট্রাম্প

সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। দিনের পর দিন অসংখ্য মানুষের প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে এই ভাইরাস।তবে কোনও দেশ যদি এই ভাইরাসের ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হড তা হল আমেরিকা। এখনও পর্যন্ত সেদেশে ১০ লক্ষেরও বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন এবং প্রায় ৬১ হাজার মানুষের প্রাণ কেড়েছ ভাইরাসটি। খুব স্বাভাবিকভাবেই মার্কিন মুলুকের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার জন্য তিনি বারেবারেই চীনকে দায়ী করেছেন। এমনকী আমেরিকা চীনের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ চাইবে, এমন হুঙ্কারও দেন তিনি। সম্প্রতি এক সাংবাদিক সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে প্রশ্ন করা হয় যে, তিনি কীসের ভিত্তিতে চীন থেকেই এই ভাইরাস ছড়ানো হয়েছে বলে দাবি করছেন? এর জবাবে ট্রাম্প জানিয়েছেন যে তার কাছে এমন কিছু প্রমাণ আছে যা নিশ্চিত করে যে, করোনাভাইরাসের উৎস আসলে চীনের উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজি। ‘হ্যাঁ আমার কাছে এর প্রমাণ আছে’, সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন ট্রাম্প। সাংবাদিকরা কী প্রমাণ আছে সেকথা জানতে চাইলে তিনি অবশ্য সাফ বলেন. ‘সেসব আমি আপনাদের সামনে বলতে পারি না।’ ট্রাম্পকে যখন জিজ্ঞাসা করা হয় যে তিনি কি এর জন্য চীনের থেকে ক্ষতিপূরণ দাবি করবেন, তিনি তখন কড়া ভাষায় জানান যে, চীনের থেকে শুধু ক্ষতিপূরণ আদায় করাই নয়, আরও কঠিন পদক্ষেপ করতে চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ইতিমধ্যেই আমেরিকা চীনের ক্ষেত্রে আমদানি শুল্ক বহুগুণ বাড়িয়েছে দেওয়ার কথা ভাবছে। পাশাপাশি ওই দেশ এমনও হুঁশিয়ারি দিয়েছে যে, চীন যদি আমেরিকার শর্ত মেনে না চলে তবে তাদের সঙ্গে সব ধরণের বাণিজ্য চুক্তিও শেষ করে দেবে ওই দেশ। এর আগেও দেখা গেছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে পড়া নিয়ে লাগাতার চীনকে দোষারোপ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র । সম্প্রতি, ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনা পরিস্থিতির সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন দেশের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের বিষয়টিও। ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন,আসলে আগামী নভেম্বরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তাকে হারানর জন্যে চীন যেকোনও পথই অবলম্বন করতে পারে। তিনি একথাও বলেন যে, চীন করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে যেভাবে আচরণ করছে, তারই প্রমাণ যে এর পিছনে তাদের হাত আছে। শুধু চীনই নয়, ট্রাম্প করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া নিয়ে আক্রমণের লক্ষ্য করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা 'হু'-কেও। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এখন চীনের হাতের পুতুল হিসাবে কাজ করছে, এই কথা বলে তিনি হুঙ্কার ছাড়ছেন যে, আমেরিকা আপাতত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে তহবিল দেওয়া বন্ধ করেছে। এবার চীনের বিরুদ্ধেও কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আমাদের করোনা ভাইরাসের বিষয়ে বিভ্রান্ত করেছে। আমরা শিগগিরি এর বিরুদ্ধে আরও কড়া পদক্ষেপ করবো, আমরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ভূমিকায় মোটেই খুশি নই।’ সূত্র:এনডিটিভি
Link copied!