বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১

সাকিবকে টপকে যাওয়া হলো না তাদের

প্রকাশিত: ০৫:২৬ এএম, মার্চ ২০, ২০২১

সাকিবকে টপকে যাওয়া হলো না তাদের

লক্ষ্য ছিল ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচেই জয় পেয়ে এগিয়ে যাওয়ার। তামিম, মুশফিক ও রিয়াদের জন্য আরও একটি লক্ষ্য ছিল। সেটি ছিল সতীর্থ সাকিব আল হাসানকে ডিঙিয়ে এগিয়ে যাওয়ার। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডেতে সাকিবই বাংলাদেশের টপ স্কোরার। সাকিবকে পেছনে ফেলে এ ম্যাচেই টপ স্কোরার হতে পারতেন তামিম, মুশফিক ও রিয়াদ বা তিনজনের কেউ। কিন্তু দুটোর একটিও হলো না। লজ্জাজনক হারের ইতিহাসে নাম লেখাল বাংলাদেশ। তামিম, মুশফিক ও রিয়াদ - এ তিনজনের সামনেই ছিল কিউইদের বিপক্ষে সাকিবকে টপকে যাবার সুবর্ণ সুযোগ। কিন্তু বাজে পারফরম্যান্সের কারণে তা আর হলো না কারো। নিউজিল্যান্ডের ডানেডিনে বাংলাদেশ সময় শনিবার ভোরে কিউই পেসারদের বিধ্বংসী বোলিংয়ে উড়ে গেছে বাংলাদেশ। ৪৯.৫ ওভারে মাত্র ১৩১ রানেই গুটিয়ে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। আর ১৩২ রানের মামুলি টার্গেট হেসেখেলেই পার করে দিয়েছে কিউই ব্যাটসম্যানরা। তাও কিনা ২২.২ ওভারেই। এ যেন পাড়ার ক্রিকেটারের সঙ্গে খেলল নিউজিল্যান্ড। অথচ টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশের শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। ইনিংসের প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলে ছক্কা হাঁকান তামিম। পরের বলেই হাঁকান বাউন্ডারি। আর সেই ম্যাচে ১৩১ রানেই গুটিয়ে যেতে হয় বাংলাদেশকে। পরিসংখ্যান বলছে, সাকিবকে প্রথম ম্যাচেই ধরে ফেলার সুযোগ ছিল তামিম, মুশফিক ও রিয়াদের। আহামরি ইনিংস খেলতে হতো না তাদের। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সাকিব আল হাসানই ওয়ানডেতে বাংলাদেশের টপ স্কোরার। কিউই আর টাইগারদের একদিনের লড়াইয়ে সাকিব আল হাসানের সংগ্রহ ২২ ম্যাচে ৬৩৯। আর শনিবারের ম্যাচের আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মুশফিকুর রহিমের স্কোর ২৬ ম্যাচে ৫৮১। তার চেয়ে ১৭ রান পিছিয়ে অধিনায়ক তামিম। ৩ ম্যাচ খেলে তামিম করেছেন ৫৬৪ রান। আর ২১ ইনিংসে ৫৫৭ রান করে তামিমের পেছনে অবস্থান করছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। সে হিসেবে সাকিবকে টপকে যেতে আজকের ম্যাচে মুশফিকের করতে হতো মাত্র ৫৯ রান। অধিনায়ক তামিম ইকবালের প্রয়োজন ছিল ৭৬। আর রিয়াদকে করতে হতো সব মিলিয়ে ৮২ রান। কিন্তু ২৩ রানের বেশি যোগ করতে পারেননি মুশফিক। ৭৬ রানের ইনিংস তো দূরের কথা ১৩ রান করেই সাজঘরের ঠিকানায় চলে যান তামিম। রিয়াদের ব্যাট থেকে আসে মাত্র ২৭ রান। অর্থাৎ সাকিবের রেকর্ড টপকে যেতে এ তিন তারকার অপেক্ষা আরও বাড়ল। কারণ সাকিব এ সিরিজে নেই। সদ্য পুত্রসন্তানের বাবা হয়েছেন তিনি। স্ত্রী শিশিরের পাশে থাকাতে আগেই নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ছুটি নিয়ে রেখেছেন তিনি।
Link copied!