রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১

সংসদে বঙ্গবন্ধুর মুখে কবিতার লাইন

প্রকাশিত: ০৬:৩৯ এএম, আগস্ট ১০, ২০২০

সংসদে বঙ্গবন্ধুর মুখে কবিতার লাইন

মৃত্যুকে অত্যন্ত স্বাভাবিক ঘটনা হিসেবেই দেখতেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। জাতীয় সংসদে কবিতার লাইন উচ্চারণ করে এর বহিঃপ্রকাশও ঘটিয়েছেন তিনি। সংসদ অধিবেশনের কার্যবিবরণী থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে। কার্যবিবরণী থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ১৯৭৪ সালের পহেলা জুলাই সংসদ সদস্য জহুর হোসেন চৌধুরীর মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব আনা হয় সংসদে। প্রস্তাবের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে বঙ্গবন্ধু বলেন, 'দীর্ঘদিন দেশের জন্য তিনি (জহুর হোসেন চৌধুরী) সংগ্রাম করে চলে গেলেন। বছরের পর বছর কারাবরণ করেছেন, নির্যাতন সহ্য করেছেন। কত যে কটূক্তি শুনতে হয়েছে এই আড়াই বছরের মন্ত্রীত্বের জন্য। জহুর আহমেদ চৌধুরী কিছুই নিয়ে যাননি। কেউ কিছু নিয়ে যায় না। একদিন সকলকেই মরতে হবে। মৃত্যুটাই স্বাভাবিক।' মৃত্যুকে কেউ রুখতে পারে না উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধু বলেন, 'তাই আজ কবির ভাষায় বলতে চাই- কাঁদিব না আর আমি/ কাঁদিব না আর,/ আমার দুঃখের দিন/ রহিবে না চিরদিন।/ দু'দিন কেন তবে/ কেঁদে অবসান হবে,/ দুঃখেও হাসিব আজি/ লীলা বিধাতার।/ কাঁদিব না আর আমি/ কাঁদিব না আর।/
Link copied!