রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১

আনারকলির মারিজুয়ানা কান্ড প্রমাণিত- পররাষ্ট্র সচিব

প্রকাশিত: ০৯:১৩ এএম, আগস্ট ১৭, ২০২২

আনারকলির মারিজুয়ানা কান্ড প্রমাণিত- পররাষ্ট্র সচিব

ডেইলি খবর ডেস্ক: আনারকলির মারিজুয়ানা কান্ড প্রমাণিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। তিনি বলেনআনারকলির বিরুদ্ধে প্রাথমিক তদন্ত শেষ হয়েছে এবং প্রমান মিলেছে।জাকার্তার বাসায় নিষিদ্ধ মাদক মারিজুয়ানা রাখা এবং সেবনের অভিযোগে আটক এবং পরবর্তীতে ইন্দোনেশিয়া থেকে ফিরিয়ে আনতে বাধ্য হওয়া কূটনীতিক কাজী আনারকলির অনৈতিক কর্মকান্ড নিয়ে দেশ-বিদেশে সমালোচনার ঝড় বয়ে চলছে। দেশের সন্মান ভুলন্ঠিত করার জন্য তাকে দেশে ফিরিয়ে আনা হলেও জাতির ক্ষত শুখাচ্ছে না।। মঙ্গলবার সচিব গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপে স্বীকার করেন যে,তার অধস্তন ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। সচিব বলেন, তদন্তে আমরা তার বাসায় মারিজুয়ানা রাখা সংক্রান্ত তথ্য পেয়েছি। এক্ষেত্রে সরকারি কর্মচারী বিধিমালা অনুসরণ করেই আমরা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো। পরবর্তী প্রসিডিংয়ে হয়তো আরও গভীরে যেতে পারবো। হাতেনাতে মাদকসহ ধরা পড়ার ওই ঘটনা বাংলাদেশের আইনে ফোজদারি অপরাধ কিনা- এমন প্রশ্নে সচিব বলেন, না, না। এটা তো অন্য দেশের ঘটনা। এটা একেক দেশে একেক রকম। যদি তা যুক্তরাষ্ট্রে হতো তাহলে সেখানকার অর্ধেক রাজ্যেই এটা কোনো বিষয় ছিল না। এটা যদি নেদারল্যান্ডসে হলেও কোনো বিষয় হতো না। তাই আমরা আপাতত অফিসিয়াল অ্যাক্টের অধীনেই তার বিষয়টি দেখছি। অভিযানের সময় আনারকলির বাসায় কোনো বিদেশির উপস্থিতি তদন্ত কমিটি নিশ্চিত হতে পারেনি জানিয়ে সচিব বলেন, তবে মারিজুয়ানা রাখার সত্যতা মিলেছে। কিন্তু এটি পরিমাণে খুব বেশি না। ফলে বিক্রির জন্য নয় বরং সেবনের জন্যই তা রাখা হয়েছিল বলে ইঙ্গিত করেন তিনি।এক প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন,যখন প্রপার ইনভেস্টিগেশন (বিস্তৃত তদন্ত) হবে তখন বিষয়গুলো আরও পরিষ্কার হবে। ইন্দোনেশিয়া সরকারের রিপোর্ট পেয়েছেন স্বীকার করে পররাষ্ট্র সচিব বলেন,সেখান থেকে আমরা এক ধরনের ইনফরমেশন পেয়েছি। তার ভিত্তিতেই তো আমরা তাকে ফিরিয়ে এনেছি। পরবর্তী বিস্তৃত তদন্তের জন্য ইনভেস্টিগেশন অফিসার জাকার্তা যেতে পারেন এমন আভাস দিয়ে সচিব বলেন, প্রয়োজন হলে আমাদের ইনভেস্টিগেশন অফিসার আবার ইন্দোনেশিয়া যাবেন। তিনি সেখানে গেলে হয়তো আরও ডিটেইলস বের করতে পারবেন।
Link copied!